Assignment

বাংলাদেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নে ব্যবসায় উদ্যোগ এর ভূমিকা নিরূপণ

২০২১ সালের ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগ থেকে এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণই শিক্ষার্থী বন্ধুরা কেমন আছো সবাই? তোমাদের জন্য এসএসসি ২০২১ ব্যবসায় উদ্যোগ ২য় অ্যাসাইনমেন্ট সমাধান বা উত্তর লেখার সুবিধার্থে বাংলাদেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নে ব্যবসায় উদ্যোগ এর ভূমিকা নিরূপণ সংক্রান্ত একটি নমুনা আর্টিকেল নিয়ে আজকে হাজির হলাম। এই আর্টিকেলটি অনুসরণ করার মাধ্যমে তোমরা ২০২১ সালের এসএসসি পরীক্ষার্থীদের জন্য নির্ধারণ করা ব্যবসা উদ্যোগ দ্বিতীয় সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট সমাধান বা উত্তর খুব সহজে সম্পন্ন করতে পারবে।

তোমরা জানো ইতোমধ্যে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড কর্তৃক প্রণীত এসএসসি ২০২১ এর সংশোধিত সংক্ষিপ্ত সিলেবাস এর আলোকে সকল সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের আওতাধীন মাধ্যমিক বিদ্যালয় সমূহের ব্যবসায় শিক্ষা শাখা থেকে ফরম ফিলাপের শিক্ষার্থীদের জন্য দ্বিতীয় সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্টে ব্যবসা উদ্যোগ বিষয়ের একটি নির্ধারিত কাজ প্রদান করেছেন।

এখানে তোমাদের দ্বিতীয় সপ্তাহে নির্ধারিত সিলেবাস এর আলোকে অর্জিত শিখনফলের মাধ্যমে ব্যবসায় উদ্যোগ এর দ্বিতীয় অ্যাসাইনমেন্ট বাংলাদেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নে ব্যবসায় উদ্যোগ এর ভূমিকা সংক্রান্ত একটি প্রতিবেদন রচনা করতে হবে।

আমরা আজকে তোমাদের জন্য ২০২১ সালের এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীদের জন্য এসএসসি ২০২১ দ্বিতীয় সপ্তাহের ব্যবসা উদ্যোগ বিষয়ের অ্যাসাইনমেন্টের সমাধান বা নমুনা উত্তর নিয়ে এলাম।

এসএসসি পরীক্ষা ২০২১ ব্যবসা উদ্যোগ দ্বিতীয় সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট

যেকোনো বিষয়ের অ্যাসাইনমেন্টের উত্তর লেখার আগে প্রথমেই সেই অ্যাসাইনমেন্ট ভালোভাবে পড়ে নিতে হবে। তাই তোমাদের জন্য প্রথমেই ২০২১ সালের এসএসসি পরীক্ষার ব্যবসায় উদ্যোগ বিষয়ের দ্বিতীয় সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট নিচের ছবিতে এবং তারপর বিস্তারিত উল্লেখ করা হলো।

294-Notice-merged-page-017

২০২১ সালের এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীদের জন্য ব্যবসায় উদ্যোগ দ্বিতীয় অ্যাসাইনমেন্ট দেয়া হয়েছে পাঠ্য বইয়ের দ্বিতীয় অধ্যায়ের ব্যবসায় উদ্যোগ ও উদ্যোক্তা থেকে।

দ্বিতীয় সপ্তাহে ব্যবসায় উদ্যোগ সংক্ষিপ্ত পাঠ্যসূচি সঠিকভাবে অধ্যায়ন করার পর তোমরা যে সকল বিষয়ে জ্ঞান অর্জন করবে তা হল- ১. উদ্যোগ ও ব্যবসায় উদ্যোগ এর ধারণা ব্যাখ্যা, ২. ব্যবসায় উদ্যোগ গড়ে ওঠার অনুকূল পরিবেশ বর্ণনা, ৩. ব্যবসায় উদ্যোগ এর বৈশিষ্ট্য ও কার্যাবলী বর্ণনা, ৪. বাংলাদেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নে ব্যবসায় উদ্যোগ এর গুরুত্ব ব্যাখ্যা;

অ্যাসাইনমেন্ট বা নির্ধারিত কাজঃ বাংলাদেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নে ব্যবসায় উদ্যোগ এর ভূমিকা নিরূপণ

উপরোক্ত এসাইনমেন্ট সম্পন্ন করার সময় তোমরা যে সকল নির্দেশনা সমূহ অনুসরণ করতে হবে বা যে সকল প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে তাহল-

  • ১. উদ্বেগ ও ব্যবসায় উদ্যোগ এর ধারণা নিতে হবে;
  • ২. ব্যবসা উদ্যোগ গড়ে ওঠার অনুকূল পরিবেশ বর্ণনা দিতে হবে;
  • ৩. ব্যবসায় উদ্যোগ এর বৈশিষ্ট্য বর্ণনা করতে হবে;
  • ৪. আর্থসামাজিক উন্নয়নে ব্যবসা উদ্যোগের গুরুত্ব ব্যাখ্যা করতে হবে;

তোমাদের ব্যবসায় উদ্যোগ দ্বিতীয় সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্টের উত্তর লেখার পারদর্শিতার ওপর ভিত্তি করে শিক্ষকগণ তোমাদের রুবিক্স উল্লেখিত নির্দেশ অনুযায়ী নম্বর প্রদান করবেন।

আপনি পছন্দ করতে পারেন: বাংলাদেশে ব্যবসায় সম্প্রসারণে ব্যবসায় পরিবেশের প্রভাব বিশ্লেষণ।

এসএসসি পরীক্ষা ২০২১ ব্যবসা উদ্যোগ দ্বিতীয় সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট সমাধান বা উত্তর

২০২১ সালের বিভিন্ন শিক্ষা বোর্ড থেকে এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের ব্যবসায় শিক্ষা শাখার শিক্ষার্থীদের ব্যবসা উদ্যোগ বিষয়ের দ্বিতীয় এসাইনমেন্ট উল্লেখিত নির্দেশনা সমূহ অনুস্বরণ করে তোমাদের জন্য একটি নমুনা প্রতিবেদন দেয়া হলো।

এই আর্টিকেলটি অধ্যায়ন করার মাধ্যমে তোমরা ২০২১ সালের ব্যবসায় উদ্যোগ বিষয়ের দ্বিতীয় সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট সম্পন্ন করার ক্ষেত্রে সহযোগিতা পাবে।

বাংলাদেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নে ব্যবসায় উদ্যোগ এর ভূমিকা নিরূপণ

সামাজিক জীবন মান উন্নয়নে ব্যবসা উদ্যোগের ভূমিকা অপরিসীম। একটি অঞ্চলে বা একটি সমাজে নতুন নতুন ব্যবসা সৃষ্টি হওয়ার মাধ্যমে সেই অঞ্চলের মানুষের আর্থসামাজিক উন্নয়নে অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। নতুন ব্যবসায় উদ্যোগ সৃষ্টির মাধ্যমে মানুষের কর্মস্থল সৃষ্টি হয় এবং মানুষের জীবিকা নির্বাহের পথ সুগম হয়। আমরা আজ জানার চেষ্টা করব বাংলাদেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নে ব্যবসায় উদ্যোগ এর ভূমিকা গুলো কি কি।

ক) উদ্যোগ ও ব্যবসায় উদ্যোগ এর ধারণা

উত্তর: যেকোনো ব্যবসায়ও কোন একজন ব্যক্তি বা কয়েকজনের সম্মিলিত প্রচেষ্টার ফসল। একটি ব্যবসায় স্থাপনের ধারণা চিহ্নিতকরণ থেকে শুরু করে ব্যবসাটি স্থাপন ও সফলভাবে পরিচালনায় ব্যবসায় উদ্যোগ। বিশদভাবে বলতে গেলে ব্যবসায় উদ্যোগ বলতে বোঝায় লাভবান হওয়ার আশায় লোকসানের সম্ভাবনা জেনেও ঝুঁকি নিয়ে ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানের জন্য জিরো ভাবে এগিয়ে যাওয়া ও সফলভাবে ব্যবসা পরিচালনা করা।

ব্যবসায় উদ্যোগ এবং ব্যবসায় উদ্যোক্তা দুটি শব্দ একটি অন্যটির সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। যিনি ব্যবসায় উদ্যোগ গ্রহণ করেন তিনি ব্যবসায় উদ্যোক্তা। আমেরিকার ফোর্ড কোম্পানির প্রতিষ্ঠাতা হেনরি ফোর্ড জাপানের ইলেকট্রিক পণ্য সরকারি প্রতিষ্ঠান চুটিয়া কোম্পানি প্রতিষ্ঠাতা কোন কে সুষীটা পৃথিবী বিখ্যাত উদ্যোক্তা ছিলেন।

অবশেষে এটি বলা যায় যে কোন কাজের কর্মচেষ্টাই উদ্যোক্তা। উদ্যোগ যেকোনো বিষয় হতে পারে আর ব্যবসায় উদ্যোগ বলতে বোঝায় লাভবান হওয়ার আশায় লোকসানের সম্ভাবনা জেনে ঝুঁকি নিয়ে কাজ করাকেই লাভবান হওয়া কেই ব্যবসায় উদ্যোগ বলা হয়।

খ) ব্যবসায় উদ্যোগ গড়ে ওঠার অনুকূল পরিবেশের ধারনা

উত্তর: আমাদের দেশে মেধাশক্তির খুব বেশি কাটতে নেই শুধুমাত্র অনুকূল পরিবেশ এর অভাবে আমাদের অগ্রযাত্রা ব্যাহত হচ্ছে ব্যবসায় উদ্যোগ গড়ে ওঠার জন্য নিম্নোক্ত অনুকূল পরিবেশ থাকা উচিত।

i) আর্থ-সামাজিক স্থিতিশীলতা: অর্থনৈতিক রাজনৈতিক ও সামাজিক স্থিতিশীলতা যেমন ব্যবসায় উদ্যোগের অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টি করে তেমনি অর্থনৈতিক রাজনৈতিক ও সামাজিক অস্থিরতা ব্যবসায় উদ্যোগ এর উপর বিরূপ প্রভাব ফেলে।

ii) উন্নত অবকাঠামোগত উপাদান: ব্যবসা পরিচালনার জন্য আনুষাঙ্গিক কিছু সুযোগ-সুবিধা যেমন বিদ্যুৎ গ্যাস ও যাতায়াত ব্যবস্থার দরকার। ব্যবসার অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টির জন্য এই সকল উপাদান থাকা বাঞ্ছনীয়।

iii) প্রশিক্ষণের সুযোগ: প্রশিক্ষণের অভাবে অনেক সময় সুযোগ থাকা সত্ত্বেও সঠিক পদক্ষেপ নেওয়া সম্ভব হয়না। প্রশিক্ষণের মাধ্যমে ব্যবসা এর জন্য অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টি করা সম্ভব।

iv) অনুকূল আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি: আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি অনুকূল থাকলে ব্যবসায় স্থাপন ও পরিচালনার সহজ হয়। অন্যদিকে অস্থিতিশীল আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি ব্যবসায় স্থাপন ও পরিচালনার ক্ষেত্রে মারাত্মক হুমকি সৃষ্টি করে।

v) পর্যাপ্ত পুঁজির প্রাপ্যতা: যে কোন ব্যবসায় উদ্যোগ সফল ভাবে বাস্তবায়ন করার জন্য প্রয়োজন। পর্যাপ্ত পরিমাণে পূজিত মূলধন ব্যবসায়ীকে আরসু প্রসারিত করতে সহায়তা করে।

vi) সরকারি হস্তক্ষেপ সরকারি পৃষ্ঠপোষকতার মাধ্যমে দেশের ব্যবসায় উদ্যোগের আরো সম্প্রসারণ ও সমৃদ্ধি সম্ভব। সরকারি বিভিন্ন সিদ্ধান্ত যেমন কর্মকৌশল কর মওকুফ, বিনা সুদে মূলধন সরবরাহ ইত্যাদি ব্যবসায় উদ্যোগের অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টি করতে সহায়তা করে।

গ) ব্যবসায় উদ্যোগ এর বৈশিষ্ট্য।

উত্তর: ব্যবসায় উদ্যোগ এর ধারণা বিশ্লেষণ করলে যে সকল বৈশিষ্ট্য বা কার্যাবলী লক্ষ্য করা যায় তা হল:

১. এটি ব্যবসায়ী স্থাপনের কর্ম উদ্যোগ।

২. নতুন সম্পদ সৃষ্টি করা ও মূলধন গঠন করা।

৩. ঝুকি আছে জেনেও লাভের আশায় ব্যবসায় পরিচালনা করা।

৪. নিজের জন্য কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করা।

৫. সার্বিকভাবে দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে অবদান রাখা।

৬. ব্যবসা উদ্যোগের ফলাফল হল এটি একটি ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান।

৭. ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান সফলভাবে পরিচালনা করা।

৮. অন্যদের জন্য কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করা।

৯. ব্যবসায় উদ্যোগের জন্য একটি ফলাফল হল একটি পণ্য বা সেবা।

১০. মুনাফার পাশাপাশি সামাজিক দায়বদ্ধতা গ্রহণ করা।

ঘ) আর্থসামাজিক উন্নয়নে ব্যবসায় উদ্যোগ এর গুরুত্ব।

উত্তর: ব্যবসায় উদ্যোগের আর্থসামাজিক উন্নয়নে ব্যবসায় উদ্যোগের গ্রন্থসমূহ নিম্নে বর্ণনা করা হলো:

১) সম্পদের সঠিক ব্যবহার: ব্যবসায় উদ্যোগ আমাদের দেশের প্রাকৃতিক সম্পদ ও কৃত্রিম সম্পদের সুষ্ঠু ব্যবহার নিশ্চিত করে সম্পদের সঠিক ব্যবহার করে থাকে। এছাড়া নতুন নতুন শিল্প স্থাপনের মাধ্যমে বিনিয়োগ বৃদ্ধি করা এবং সম্পদের সুষ্ঠু ব্যবহার ও নিশ্চিত করা সম্ভব হয়ে যায়।

২) কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি: আমাদের দেশের সরকারের পাশাপাশি উদ্যোক্তা গ্রহণের মাধ্যমে বিভিন্ন শিল্প কারখানাস্থাপন পরিচালনা ও সম্প্রসারণ হয়ে থাকে। এর মাধ্যমে নিত্য নতুন কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হয় যা বেকার সমস্যা দূর করতে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করে থাকে।

৩) দক্ষ মানব সম্পদ সৃষ্টি: বাংলাদেশ একটি জনবহুল দেশ আমাদের এই বিশাল জনসংখ্যা আমাদের সম্পদ হতে পারে কারণ। ব্যবসায় উদ্যোক্তা দেশের অদক্ষ জনগোষ্ঠীকে উৎপাদনশীল কাজে নিয়োজিত করে দক্ষ মানব সম্পদে রূপান্তরিত করতে পারে।

৪) জাতীয় উপাদান ও আয় বৃদ্ধি: ব্যবসায় উদ্যোগের মাধ্যমে দেশের জাতীয় উপাদান ও আয় বৃদ্ধি করা সম্ভব হয়। ফলে সরকার কর্তৃক নির্ধারিত জাতীয় আয় বৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করা সম্ভব হয়।

৫) পর নির্ভরশীলতা দূরীকরণ: ব্যবসায় উদ্যোগের মাধ্যমে আমরা আমাদের পরনির্ভরশীলতা অনেকাংশে হ্রাস করতে সক্ষম হতে পারে। ব্যবসায় উদ্যোগ এর সঠিক ব্যবহারের মাধ্যমে আমরা আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী হতে পারব।

সর্বশেষ আমরা বলতে পারি যে উপরোক্ত কাজগুলো আর্থিক সামাজিক উন্নয়নে ব্যবসায় উদ্যোগ এর গুরুত্ব অনেকাংশে বেশি বলে আমাদের ধারণা।

বন্ধুরা এই ছিল তোমাদের জন্য ২০২১ সালের এসএসসি পরীক্ষায় ব্যবসা উদ্যোগ দ্বিতীয় সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট সমাধান বা উত্তর বা আর্টিকেল। আশা করছি এটা অনুসরণ করার মাধ্যমে তোমরা বাংলাদেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নে ব্যবসায় উদ্যোগ এর ভূমিকা নিরূপণ শীর্ষক প্রতিবেদনটি সুন্দর ভাবে প্রস্তুত করতে পারবে।

আরও দেখুন :

 

 

Tags

Siam Shihab

Hello, I'm Siam Shihab. I write Content about all Trending News and Information. I'm working on this Website since June 2021. You can Visit my Profile page to read all of my content. Thank You so much to know about me.
Back to top button
Close