Assignment

ভূগােল ও পরিবেশের মধ্যকার সম্পর্ক বিষয়ক প্রতিবেদন প্রণয়ন

এসএসসি ২০২১ এর মানবিক বিভাগের সুপ্রিয় পরীক্ষার্থী বন্ধুরা, তোমাদের জন্য প্রণীত এসএসসি পরীক্ষা ২০২১ বাংলাদেশের ভূগোল ও পরিবেশ দ্বিতীয় সপ্তাহের এ্যাসাইনমেন্ট এর বাছাইকরা নমুনা উত্তর (ভূগােল ও পরিবেশের মধ্যকার সম্পর্ক বিষয়ক প্রতিবেদন প্রণয়ন) উপস্থাপন করা হয়েছে। তোমরা যারা সরকারি, বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের এসএসসি ২০২১ পরীক্ষার্থী আছো তোমাদের ২য় সপ্তাহের এ্যাসাইনমেন্ট বাংলাদেশের ভূগোল ও পরিবেশ বিষয়ের একটি নির্ধারিত কাজ দেয়া হয়েছিল। যথাযথ মূল্যায়ন নির্দেশনা অনুসরণ করে তোমাদের জন্য ভূগোল ও পরিবেশ ১ম এ্যাসাইনমেন্ট এর বাছাইকরা নমুনা উত্তর দেওয়া হল।

এসএসসি পরীক্ষা ২০২১ বাংলাদেশের ভূগোল ও পরিবেশ ১ম এ্যাসাইনমেন্ট

294-Notice-merged-page-019

স্তরঃ এস.এস.সি পরীক্ষা ২০২১, বিভাগঃ মানবিক, বিষয়ঃ ভূগোল ও পরিবেশ, বিষয় কোডঃ ১১০, মোট নম্বরঃ ১৬, অ্যাসাইনমেন্ট নম্বর-০১

অধ্যায় ও শিরােনামঃ প্রথম অধ্যায়: ভূগােল ও পরিবেশ

অ্যাসাইনমেন্টঃ ভূগােল ও পরিবেশের মধ্যকার সম্পর্ক বিষয়ক প্রতিবেদন প্রণয়ন;

শিখনফল/বিষয়বস্তুঃ

  • ১. ভূগােল ও পরিবেশের ধারণা ব্যাখ্যা করতে পারবে।
  • ২. ভূগােলের পরিধি বর্ণনা করতে পারবে।
  • ৩. ভূগােল ও পরিবেশের উপাদানসমূহের আন্ত:সম্পর্ক বিশ্লেষণ করতে পারবে

নির্দেশনা (সংকেত/ধাপ/পরিধি):

পাঠ্যপুস্তক/ শিক্ষক (মােবাইল/অনলাইনে) যােগাযােগ করে নেয়া যেতে পারে। প্রয়ােজনে ইন্টারনেট থেকেও সহায়তা নেয়া যেতে পারে। ভূগােলের ধারণা, পরিবেশের ধারণা বর্ণনা করতে হবে। ভূগােলের পরিধি বর্ণনা করতে হবে।

ভূগােলের শাখা এবং পরিবেশের উপাদান ও প্রকারভেদ বর্ণনা করতে হবে। ভূগােল ও পরিবেশের উপাদানসমূহের আন্ত:সম্পর্ক বিশ্লেষণ;

বাছাইকরা নমুনা প্রশ্নের উত্তর দেখুন : খেলার মাধ্যমে প্রাণিকোষ এবং প্রাণিটিস্যুর গঠন ও কাজ বিশ্লেষণ

এসএসসি পরীক্ষা ২০২১ বাংলাদেশের ভূগোল ও পরিবেশ দ্বিতীয় সপ্তাহের এ্যাসাইনমেন্ট এর বাছাইকরা নমুনা উত্তর

ভূগোলের ধারণাঃ

আমরা পৃথিবীতে বাস করি। পৃথিবী আমাদের আবাসভূমি। মানুষের আবাসভূমি হিসেবে পৃথিবীর বর্ণনা হলো ভূগোল। ইংরেজিতে Geography শব্দটি থেকে ভূগোল শব্দ এসেছে। প্রাচীন গ্রিসের ভূগোলবিদ ইরাটসথেনিস প্রথম Geography শব্দ ব্যবহার করেন। Geo ও Graphy শব্দ দুটি মিলেই হয়েছে Geography। Geo শব্দের অর্থ ভূ বা পৃথিবী এবং Graphy শব্দের অর্থ বর্ণনা। সুতরাং Geography শব্দটির অর্থ পৃথিবীর বর্ণনা। পৃথিবী আবার মানুষের আবাসভূমি। অধ্যাপক ম্যাকনি মানুষের আবাসভূমি হিসেবে পৃথিবীর আলোচনা বা বর্ণনাকে বলেছেন ভূগোল। কোন কোন ভূগোলবিদ ভূগোলকে বলেছেন পৃথিবীর বিবরণ, কেউ বলেছে পৃথিবীর বিজ্ঞান। Professor carl Ritter ভূগোলকে বলেছেন পৃথিবীর বিজ্ঞান।
ভূগোলকে একদিকে প্রকৃতিবিজ্ঞান আবার অন্যদিকে পরিবেশ ও সমাজের বিজ্ঞান।

পরিবেশের ধারনাঃ

মানুষ যেখানে বাস করুক তাকে ঘিরে একটি পারিপার্শ্বিক অবস্থা বিরাজমান। প্রকৃতির সকল দান মিলেমিশে তৈরি হয় পরিবেশ।নদ নদী, নালা, সাগর, মহাসাগর, পাহাড়-পর্বত বন-জঙ্গল, ঘরবাড়ি, রাস্তাঘাট, উদ্ভিদ, প্রাণী, মাটি,পানি ও বায়ু নিয়ে গড়ে উঠে পরিবেশ। কোন জীবের চারপাশের সকল জীব ও জড় উপাদানের সর্বসমেত প্রভাব ও সংঘটিত ঘটনা হলো জীবের পরিবেশ। পরিবেশ বিজ্ঞানী Arms এর মতে, জীবসম্প্রদায় পারিপার্শ্বিক জৈব ও প্রাকৃতিক অবস্থাকে পরিবেশ বলে।
পার্ক (C.C.Park) বলেছেন, পরিবেশ বলতে স্থান ও কালের কোন নির্দিষ্ট বিন্দুতে মানুষকে ঘিরে থাকা সকল অবস্থার যোগফল বোঝায়। স্থান ও কালের পরিবর্তনের সঙ্গে পরিবেশনও পরিবর্তিত হয়। যেমন- শুরুতে মাটি, পানি, বায়ু, উদ্ভিদ, প্রাণী নিয়ে ছিল মানুষের পরিবেশ। পরবর্তীতে এর সঙ্গে যোগ হয়েছে মানুষের সামাজিক, অর্থনৈতিক, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক কার্যাবলী। ফলে সৃষ্টি হয়েছে এক নতুন ধরনের পরিবেশ।

ভূগোলের পরিধিঃ

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির বিকাশ, নতুন নতুন আবিষ্কার, উদ্ভাবন, চিন্তাধারার বিকাশ, সমাজের মূল্যবোধের পরিবর্তন ভূগোলের পরিধিকে অনেক বিস্তৃত করেছে। এখন নানান রকম বিষয়। যেমন- ভূমিরূপবিদ্যা, আবহাওয়াবিদ্যা, সমুদ্রবিদ্যা, মৃত্তিকাবিদ্যা, প্রাণিবিদ্যা, সমাজবিদ্যা, অর্থনীতি, রাজনীতি ইত্যাদি ভূগোল বিষয়ের অন্তর্ভুক্ত হয়েছে।

ভূগোলের শাখাঃ

ক) প্রাকৃতিক ভূগোলঃ

ভূগোলের যে শাখায় ভৌত পরিবেশ ও এর মধ্যে কার্যরত বিভিন্ন প্রক্রিয়া অন্তর্ভুক্ত থাকে তাকে প্রাকৃতিক ভূগোল বলে। পৃথিবীর ভূমিরূপ, এর গঠন প্রক্রিয়া, বায়ুমণ্ডল, বারিমন্ডল, জলবায়ু ইত্যাদি প্রাকৃতিক ভূগোলের আলোচ্য বিষয়।

১। ভূমিরূপবিদ্যাঃ ভূমিরূপ বিদ্যার একটি গ্রহের নগ্নীভবন ও ক্ষয়ীভবনের ভূমিরূপের পরিবর্তন সম্পর্কে আলোচনা করে।

২। জলবায়ু বিদ্যাঃ জলবায়ু বিদ্যা পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলের দীর্ঘমেয়াদী আবহাওয়ার ধরন এবং এর পরিপ্রেক্ষিতে পৃথিবীর প্রভাব সম্পর্কে আলোচনা করে।

৩। জীব ভূগোলঃ পৃথিবীপৃষ্ঠের প্রাণীজগৎ এবং উদ্ভিদের বন্টন নিয়ে জীব ভূগোল আলোচনা করে।

৪। মৃত্তিকা ভূগোলঃ মৃত্তিকা ভূগোলবিদগণ অশ্মন্ডলের উপরিভাগের মৃত্তিকা এবং এর বন্টন বিন্যাস সম্পর্কে আলোচনা করে।

৫। সমুদ্রবিদ্যাঃ পৃথিবীর প্রায় তিন-চতুর্থাংশ সমুদ্র। বিভিন্ন মহাদেশের মধ্যে সমুদ্রপথে যোগাযোগ, সমুদ্র পৃষ্ঠের উত্থান, অবনমন, সমুদ্রের পানির রাসায়নিক গুনাগুন ও লবণাক্ততা নির্ধারণ, সামুদ্রিক সম্পদ ব্যবস্থাপনা সমুদ্রবিদ্যার আলোচ্য বিষয়।

খ) মানব ভূগোলঃ

পৃথিবীর বিভিন্ন অঞ্চলে বিভিন্ন পরিবেশে মানুষ কিভাবে বসবাস করছে, কিভাবে জীবনযাত্রা নির্বাহ করছে, কেন এভাবে জীবনযাত্রা নির্বাহ করছে, তার কার্যকারণ অনুসন্ধান মানব ভূগোলের আলোচ্য বিষয়।

১। অর্থনৈতিক ভূগোলঃ প্রাকৃতিক ও সামাজিক পরিবেশের সঙ্গে মানিয়ে নিয়ে পৃথিবীতে বেঁচে থাকার জন্য মানুষ যেসব অর্থনৈতিক কাজ করে তা অর্থনৈতিক ভূগোলের আলোচ্য বিষয়। এসব কাজ হল কৃষিকাজ, পশুপালন, সম্পদ, খনিজ সম্পদ সংগ্রহ, ব্যবসা বাণিজ্য পরিচালনা ইত্যাদি।

২। জনসংখ্যা ভূগোলঃ জনসংখ্যা, জনসংখ্যা বৃদ্ধির গতি প্রকৃতি, তার কার্যকারণ, সামাজিক ও অর্থনৈতিক জীবনের উপর এর প্রভাব জনসংখ্যা ভূগোলের আলোচ্য বিষয়।

৩। আঞ্চলিক ভূগোলঃ অঞ্চলভেদে পৃথিবীর ভূ প্রকৃতি, জলবায়ু, উদ্ভিদ, জীবজন্তু,মানুষ ও মানুষের জীবনধারণ প্রণালী বিশেষ বৈশিষ্ট্যের অধিকারী। আঞ্চলিক বৈশিষ্ট্য অনুসারে পৃথিবীর বিভিন্ন অঞ্চলের ভৌগলিক বিষয়বস্তু অনুসরণ করা আঞ্চলিক ভূগোলের প্রধান বিষয়।

৪। রাজনৈতিক ভূগোলেঃ রাজনৈতিক বিবর্তন রাজনৈতিক বিভাগ ও পরিসীমা এবং বিভাগের মধ্যেস্থিত ভৌগলিক বিষয় রাজনৈতিক ভূগোলের প্রধান বিষয়।

৫। জনসংখ্যাতাত্ত্বিক ভূগোলঃ ভূগোলের এই শাখায় সংখ্যাতাত্ত্বিক কৌশল এবং মডেল ব্যবহার করে প্রমাণার্থ পরীক্ষা করা হয়। এছাড়া সংখ্যাতাত্ত্বিক পদ্ধতি ভূগোলের অন্যান্য শাখা ব্যবহার করা হয়। কিছুকিছু ভূগোলবিদ শুধু সংখ্যাতাত্ত্বিক পদ্ধতিতে বিশেষজ্ঞ হন।

৬। পরিবহন ভূগোলঃ পরিবহন ভূগোলবিদরা সরকারি, বেসরকারি, যাতায়াত ব্যবস্থা এবং মানুষ ও পণ্যের এক স্থান থেকে অন্য স্থানে স্থানান্তর সম্পর্কে আলোচনা করে।

৭। নগর ভূগোলঃ ভূগোলের এ শাখায় নগরের উৎপত্তি ও বিকাশ, নগর ও শহরের শ্রেণীবিভাগ, নগর পরিবেশ, নগরের কেন্দ্রীয় এলাকা, নগরীর বস্তি ইত্যাদি বিষয় চর্চা করা হয়।

৮। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনাঃ দুর্যোগের ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ হ্রাস, দুর্যোগ থেকে পরিবেশ সহ সমুদ্রের প্রকৌশল দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা আলোচ্য বিষয়।

পরিবেশের উপাদান ও প্রকারভেদঃ

পরিবেশের উপাদান দুই প্রকার। যেমন – জড় উপাদান ও জীব উপাদান। যাদের জীবন আছে, যারা খাবার খায়, যাদের বৃদ্ধি আছে, জন্ম আছে, মৃত্যু আছে তাদের বলে জীব। গাছপালা, পশুপাখি,কীটপতঙ্গ, মানুষ ও অন্যান্য প্রাণী হল জীব। এরা পরিবেশের উপাদান। জীবদের নিয়ে গড়া পরিবেশ হলো জীব পরিবেশ। মাটি, পানি, বায়ু, সাগর, আলো, পাহাড়-পর্বত নদী-নালা, আদ্রতা, উষ্ণতা হলো জড় পরিবেশের উপাদান। এই জড় উপাদান নিয়ে গড়া পরিবেশ হলো জড় পরিবেশ।

অসংখ্য জীব ও জড় উপাদান রয়েছে পরিবেশে। নিম্নে কয়েকটি উপাদান আলোচনা করা হলোঃ

  1. গাছপালাঃ গাছপালা পরিবেশের জীব উপাদান।গাছ কার্বণ-ডাই-অক্সাইড গ্রহণ করে এবং অক্সিজেন ত্যাগ করে। আর আমরা সে অক্সিজেন গ্রহণ করি।এভাবে পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় সাহায্য করে। এছাড়া উদ্ভিদ ও গাছপালা আমাদের খাদ্যের চাহিদা পূরণ করে থাকে।
  2. বিভিন্ন ধরনের প্রাণীঃ প্রাণীরা পরিবেশের জীব উপাদান। বিভিন্ন ধরনের প্রাণী।,যেমন গরু, মহিষ, ছাগল ভেড়া ইত্যাদির দুধ ও মাংস মানুষের খাদ্য ও পুষ্টির চাহিদা মেটায়।
  3. পানিঃ পানি পরিবেশের জড় উপাদান।বিশুদ্ধ পানির অপর নাম জীবন। মানুষ ও বিভিন্ন প্রাণী এবং গাছপালা বেঁচে থাকার জন্য পানি অপরিহার্য।
  4. মাটিঃ মাটি পরিবেশের জড় উপাদান।মাটিতে গাছপালা ও তরুলতা জন্মায় এবং মানুষ মাটিতে ফসল চাষ করে তাদের খাদ্যের চাহিদা মিটিয়ে থাকে।

ভূগােল ও পরিবেশের উপাদানসমূহের আন্ত:সম্পর্ক বিশ্লেষণঃ

ভূগোল ও পরিবেশ একে অন্যের সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। এদের একটি ছাড়া আরেকটি কল্পনা করা প্রায় অসম্ভব। ভূগোল হল পৃথিবীর বিজ্ঞান পৃথিবীপৃষ্ঠে সংঘটিত ব্যবস্থাগুলো কিভাবে কাজ করছে এবং প্রাকৃতিক বিষয় গুলোর সাথে মানুষের কি সম্পর্ক মানুষ কিভাবে তা নিজেদের সাথে মানিয়ে চলছে তার ব্যাখ্যা অন্বেষণেই বের হয়েছে ভূগোল অন্যদিকে মানুষ যেখানে বসবাস করুক না কেন তাকে ঘিরে রয়েছে পারিপার্শ্বিক অবস্থা আমাদের পরিবেশ পরিবেশ যেসব উপাদান দিয়ে গঠিত হয় তার যথোপযুক্ত ব্যাখ্যা এবং আলোচনা করার জন্য রয়েছে ভূগোল। সুতরাং ভূগোল ও পরিবেশ একই সূত্রে গাঁথা।

আর আমরা যদি ভূগোল বর্ণনা ও গবেষণা কে কাজে লাগিয়ে একটি সুন্দর কাঠামো তৈরি করতে পারি তাহলে আমরা একটি সুন্দর পরিবেশের পৃথিবী তৈরি করতে পারব। ভূগোলের প্রধান আলোচ্য বিষয় হল মানুষ ও পরিবেশ। মানুষ ও পরিবেশের সম্পর্ক নিয়ে ভূগোল চর্চার বয়স অনেক পুরোনো তবে মানুষ ও পরিবেশের সম্পর্ক মানুষের স্থান কোথায় এবং মানুষ পরিবেশের উপর কতটা নির্ভরশীল নাকি মানুষ তার শ্রম ও মেধা তারা পরিবেশকে ব্যবহার উপযোগী করে তুলেছে তা সম্পর্কে জানতে হলে আপনাকে অবশ্যই ভূগোল পাঠ করতে হবে। ভূগোলের প্রধান দুটি ধারা প্রাকৃতিক ও মানবিক প্রাকৃতিক ভূগোলের আলোচ্য বিষয়গুলো পৃথকভাবে বিবেচনা করা হলে দেখা যায় যে প্রধান বিষয় হচ্ছে- ভূমি, পানি, বায়ুমণ্ডল প্রাকৃতিক ভূগোলের এই তিনটি বিষয় নিয়ে প্রাকৃতিক পরিবেশ গড়ে উঠেছে ভূমিকা প্রধান হিসেবে বিবেচনা করা হয়। প্রাকৃতিক ভূগোলের পৃথিবীর প্রধান ভূমিরূপ গঠন পরিবেশ ও কাঠামো কিভাবে ভূমিরূপ গড়ে উঠেছে এই সকল ধারণা ভূগোলেই থাকে।

এই ছিল তোমাদের জন্য প্রণীত এসএসসি পরীক্ষা ২০২১ বাংলাদেশের ভূগোল ও পরিবেশ দ্বিতীয় সপ্তাহের এ্যাসাইনমেন্ট এর বাছাইকরা নমুনা উত্তর- ভূগােল ও পরিবেশের মধ্যকার সম্পর্ক বিষয়ক প্রতিবেদন প্রণয়ন;

 

আরো দেখুন-

Tags

Siam Shihab

Hello, I'm Siam Shihab. I write Content about all Trending News and Information. I'm working on this Website since June 2021. You can Visit my Profile page to read all of my content. Thank You so much to know about me.
Back to top button
Close