Pension Calculator BD, Gratuity/ Pension Rules Rate in Bangladesh

Pension Calculator BD, Gratuity/ Pension Rules Rate in Bangladesh. Are you looking for Pension Calculator BD and Gratuity Calculator then you are right place. We will discuss about it. Hope you will clear about Pension Rules & Rate in Bangladesh.

The retirement issue mostly relates to those who are in job situation and the retirement age in public service is 57 years. The agriculture sector has no retirement concept as also the case in self-employment. The aspects of retirement in terms of age, old age welfare and social impact have been discussed in this paper.

Pension system in Bangladesh is mainly observed in government services. The pension issues are settled according to the rules of the Public Servants (Retirement) Act of 1974. There are four categories of pensions which have been elaborated and analyzed in the paper.

bangladesh government employee

Pension rules in Bangladesh 2019

পেনশন শব্দটির নাম শুনলেই বাংলা ব্যান্ড আয়ুব বাচ্চুর পেনশন গানটির কথা মনে পড়ে। তাছাড়া আমরা বিভিন্ন নাটক, সিনেমায় পেনশন উত্তলনের ভোগান্তি দেখেছি।

এত কাঠ কয়লা পুড়েও যদি অবশেষে আপনার শেষসম্বল টুকু হাতে সঠিক না পান কেমন লাগবে?তাই আজ আমরা ল্যাম্পগ্রান্ট, গ্র্যাচুইটি ও পেনশনের হিসাব নেয়ে আলোচনা করবো

কিভাবে বের করবেন ল্যাম্পগ্রান্ট, গ্র্যাচুইটি ও পেনশনের হিসাব ?

অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থ বিভাগের ২৩/১২/২০১৩ তারিখে নং-০৭.০০.০০০০.১৭১.১০.০০৬.১৫-১৮১, স্মারকমূলে জারিকৃত প্রজ্ঞাপনে সরকারি চাকুরিজীবীদের অবসরকালীন সুবিধাদি/প্রাপ্যতা তথা পেনশনযোগ্য চাকুরিকাল ও পেনশনের পরিমান পূণঃনির্ধারণ করা হয়েছে।

পূর্বেকার পেনশন যোগ্য চাকুরিকাল ১০-২৫ বছরের পরিবর্তে ৫-২৫ বছর এবং পেনশনের হার সর্বশেষ আহরিত মূলবেতনের৮০% এর স্থলে ৯০% -এ উন্নীত করা হয়েছে। ফলে বর্তমানে চাকুরীকাল ৫ বছর হলেই আপনি পেনশনের আওতায় আসবেন। পূর্বে চাকুরীকাল ১০ বছর না হলে পেনশনের আওতায় আসতো না।

Current pension rate in Bangladesh

জেনে নিন চাকুরীকাল অনুযায়ী পেনশনের হারঃ

চাকুরীকাল ৫ বছর হলে ২১%, প্রাপ্ত হবেন।
চাকুরীকাল ৬ বছর হলে ২৪%, প্রাপ্ত হবেন।
চাকুরীকাল ৭ বছর হলে ২৭%, প্রাপ্ত হবেন।
চাকুরীকাল ৮ বছর হলে ৩০%, প্রাপ্ত হবেন।
চাকুরীকাল ৯ বছর হলে ৩৩% শতাংশ প্রাপ্ত হবেন।

চাকুরীকাল ১০ বছর হলে ৩৬%, আগের হার ছিল ৩২%।
চাকুরীকাল ১১ বছর হলে ৩৯%, আগের হার ছিল ৩৫%।
চাকুরীকাল ১২ বছর হলে ৪৩%, আগের হার ছিল ৩৮%।
চাকুরীকাল ১৩ বছর হলে ৪৭%, আগের হার ছিল ৪২%।
চাকুরীকাল ১৪ বছর হলে ৫১%, আগের হার ছিল ৪৫%।
চাকুরীকাল ১৫ বছর হলে ৫৪%, আগের হার ছিল ৫৮%।

চাকুরীকাল ১৬ বছর হলে ৫৭%, আগের হার ছিল ৫১%।
চাকুরীকাল ১৭ বছর হলে ৬৩%, আগের হার ছিল ৫৪%।
চাকুরীকাল ১৮ বছর হলে ৬৫%, আগের হার ছিল ৫৮%।
চাকুরীকাল ১৯ বছর হলে ৬৯%, আগের হার ছিল ৬১%।
চাকুরীকাল ২০ বছর হলে ৭২%, আগের হার ছিল ৬৪%।

চাকুরীকাল ২১ বছর হলে ৭৫%, আগের হার ছিল ৬৭%।
চাকুরীকাল ২২ বছর হলে ৭৯%, আগের হার ছিল ৭০%।
চাকুরীকাল ২৩ বছর হলে ৮৩%, আগের হার ছিল ৭৪%।
চাকুরীকাল ২৪ বছর হলে ৮৭%, আগের হার ছিল ৭৭%।
চাকুরীকাল ২৫ বছর হলে ৯০%, আগের হার ছিল ৮০%।

ক) বাধতামূলকভাবে সমর্পিত আনুতোষিকের হার (টাকায়)

অর্থ মন্ত্রণালয়ের ২৩/১২/২০১৩ তারিখের ০৭.০০.০০০০.১৭১.১৩.০২৭.১৩-১৬০ সংখ্যক স্মারকের প্রজ্ঞাপন মোতাবেক পেনশন সুবিধার আওতাভুক্ত অবসর গ্রহনকারী চাকুরে কিংবা মৃত্যবরণকারী চাকুরের পরিবারের জন্য বাধ্যতামুলক সমর্পিত অর্ধেক(৫০%) গ্রস পেনশনের প্রতি ১(এক) টাকার বিপরীতে আনুতোষিকের হার নিম্নরুপভাবে পূণঃ নির্ধারণ করা হয়েছেঃ

১. পেনশনযোগ্য চাকুরীকাল ৫ বছর বা ততোধিক কিন্তু ১০ বছরের কম
২৬৫ টাকা (পূর্বে ছিল না।১/৭/২০১৫ হতে পেনশন যোগ্য চাকরিকাল নতুন সংযোজন করা হয়েছে)

২. পেনশনযোগ্য চাকুরীকাল ১০ বছর বা ততোধিক কিন্তু ১৫ বছরের কম
২৬০ টাকা (পূর্বের হার ২৩০ টাকা)

৩. পেনশনযোগ্য চাকুরীকাল ১৫ বছর বা ততোধিক কিন্তু ২০ বছরের কম
২৪৫ টাকা (পূর্বের হার ২১৫ টাকা)

৪. পেনশনযোগ্য চাকুরীকাল ২০ বছর বা ততোধিক ২৩০টাকা (পূর্বের হার ২০০ টাকা)

(খ) স্বেচ্ছায় সমর্পিত অবশিষ্ট আনতোষিকঃ

গ্রস পেনশনের অবশিষ্ট অর্ধেক (৫০%) একসাথে সমর্পণকারী অবসরভোগীগণ উপরে বর্নিত হারের অর্ধেক হারে আনুতোষিক প্রাপ্য হতেন।যা ১ জুলাই, ২০১৭ হতে বন্ধ করা হয়েছে।

১) ল্যামগ্রান্ট হিসাব নির্ধারণের পদ্ধতিঃ চাকুরিতে সর্বশেষ মূলবেতন x চাকুরিতে অর্জিত ছুটি (সর্বোচ্চ ১৮ মাস) = মোট টাকা।

২) আনুতোষিক নির্ধারণের পদ্ধতিঃ সর্বশেষ মূলবেতন x সর্বমোট চাকুরির জন্য পেনশনের নির্ধারিত হার (%) ÷ ২ x আনুতোষিকের নির্ধারিত হার = মোট টাকা।

৩) পেনশন নির্ধারণের পদ্ধতিঃ সর্বশেষ মূলবেতন x সর্বমোট চাকুরির জন্য পেনশনের নির্ধারিত হার (%) ÷ ২ = মোট টাকা।

Pension Calculator BD

Pension Calculator BD

এবার পেনশন ও গ্রাচুইটি হিসাবের পালাঃ

উদাহরণ-১ জাহিদ সাহেবের জন্ম তারিখ ০১/০৬/১৯৫৮, তিনি ১৪/১২/১৯৯০ খ্রিঃ তারিখে চাকরিতে যোগদান করেছেন।তিনি ০১/০৬/২০১৮ তারিখে অবসর গমন করবেন।তার মূলবেতন ৩৪০১০/- তিনি মোট চাকরি করেছেন ২৭ বছর ৫ মাস ১৭ দিন।তিনি বিনাবেতনে কোন ছুটি ভোগ করেননি।তাহলে তার প্রাপ্য আনুতোষিক ও মাসিক পেনশন কত হবে?

১. জাহিদ সাহেব মোট পেনশনের কত শতাংশ পাবেন?

সুত্রটিঃ সর্বশেষ মূলবেতন x সর্বমোট চাকুরির জন্য পেনশনের নির্ধারিত হার (%) ÷ ২ = মোট টাকা।
সুতরাং তার প্রাপ্য পেনশন = (৩৪০১০ x ৯০%) ÷ ২ টাকা
= ৩০৬০৯ ÷ ২ টাকা
= ১৫৩০৪.৫ টাকা

২. জাহিদ সাহেবে কত টাকা এককালিন ল্যাম্পগ্রান্ট পাবেন?
সূত্রঃ চাকুরিতে সর্বশেষ মূলবেতন x অর্জিত ছুটি (১৮ মাস) টাকা
সুতরাং ল্যাম্পগ্রান্ট পাবেন = ৩৪০১০ x ১৮ টাকা
= ৬,১২,১৮০ টাকা।

৩. জাহিদ সাহেবে কত টাকা এককালিন আনুতোষিক পাবেন?
সুত্রটি হলঃ (বেসিক বেতন x শতকরা হার) ÷ ২ x বাধ্যতামুলক সমর্পিত অনুতোষিক
সুতরাং-আনুতোষিক [(৩৪০১০ x ৯০%) ÷ ২] x ২৩০
= [৩০৬০৯ ÷ ২] x ২৩০
= ১৫৩০৪.৫ x ২৩০
= ৩৫,২০,০৩৫ টাকা

৪. তিনি প্রতি মাসে কত টাকা পেনশন পাবেন?
সত্রটি হলঃ (বেসিক বেতন x শতকরা হার) ÷ ২ + চিকিৎসা ভাতা
সুতরাং মাসিক পেনশন প্রাপ্য = [(৩৪০১০ x ৯০%) ÷ ২] + ১৫০০ টাকা
= [৩০৬০৯ ÷ ২] + ১৫০০ টাকা
= ১৫৩০৪.৫ + ১৫০০ টাকা
= ১৬৮০৪.৫ টাকা

ব্যাখ্যাঃ ৬৫ বছরের উর্ধ্বে পেনশনারদের মাসিক চিকিৎসা ভাতা ২৫০০ টাকা (০১/০৭/২০১৬ তারিখ হতে কার্যকর হয়েছে)।

বিঃদ্রঃ পরবর্তীতে চাকরিরত অবস্থায় একজন মৃত্যুবরণকারী ও চাকরিতে স্থায়ীভাবে অক্ষম চাকরিজীবীর পেনশন হিসাব সংযোজন করা হবে।

ব্যাখ্যাঃ

৫ হতে ২৪ বছরের চাকুরিকাল তখনই পেনশনের যোগ্য হবে যখনঃ

১) একজন কর্মচারী মৃত্যুবরণ করলে কিংবা সরকার কর্তৃক গঠিত মেডিক্যাল বোর্ড দ্বারা (শারীরিক ও মানসিক বৈকল্যের কারণে) স্থায়ীভাবে অক্ষম (Invalid) ঘোষিত হলে এবং

২) স্থায়ী পদ বিলুপ্তির কারণে চাকুরি হতে ছাঁটাইয়ের ক্ষেত্রে।

(অর্থ মন্ত্রণালয়ের ১৪/১০/২০১৫ তারিখের ০৭.০০.০০০০.১৭১.১৩.০০৬.১৫-৮১ সংখ্যক স্মারকের প্রজ্ঞাপন মোতাবেক আপগ্রেড করা হয়েছে।)

Retirement due to old age makes the elderly people very insecure and vulnerable. Low economic growth, overall impoverished condition of the society, and increasing dependency ration erodes into the traditional family support system fro the elderly. This calls for policy level initiatives by the government and institutional arrangements for care of the old age population.

This problem has been globally recognized in the International Conference on Population and Development, 1994. Programme of Action of the Conference emphasized that the economic and social impact of the ageing populations is both an opportunity and a challenge to all societies.