পায়ে দুর্গন্ধ! জেনে নিন কিছু সমাধান

অনেকেই পেশাগত কারনে অত্যন্ত ব্যস্ত সময় পার করেন। পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে অনেককেই দীর্ঘ সময় ধরে জুতা-মোজা পায়ে পরিধান করতে হয়। দীর্ঘ সময়ধরে জুতা-মোজা পায়ে পরিধান করার ফলে পায়ে ঘাম হতে থাকে এবং এই ঘাম থেকে প্রচণ্ড দুর্গন্ধ বের হতে থাকে যা নিজের জন্য যেমনি, তেমনি অন্যের জন্যও মহা বিরক্তির কারন হয়ে দাঁড়ায়।

যে কারনে পায়ের দুর্গন্ধ হয়: পায়ের দুর্গন্ধের প্রধান কারণ পায়ের ঘাম। ঘেমে যাওয়া পায়ে ব্যাকটেরিয়া আক্রমণ করে। এছাড়া বেশিরভাগ ক্ষেত্রে জুতার ভেতর থেকে ঘাম বেরোতে পারে না। অনেকক্ষণ এমন অবস্থায় থাকার ফলে পা থেকে দুর্গন্ধ ছড়ায়। তবে সমস্যাটি শুধুই যে সু বা জুতো ব্যবহারের- তাও নয়। বিভিন্ন শারীরিক সমস্যার কারণেইও পায়ে দুর্গন্ধ হতে পারে।

পায়ের দুর্গন্ধে করণীয়
শীতে হাত-পা ঘামলে বা দুর্গন্ধ হলে কি করণীয় হতে পারে, এ নিয়ে রইলো কিছু টিপস:

•শীতে হাত-পা ঘামা ও দুর্গন্ধ হওয়া থেকে বাঁচতে হাত-পা সব সময় পরিস্কার রাখতে হবে।
•হাত-পায়ের নখ সবসময় ধুয়ে-মুছে পরিস্কার রাখতে হবে।
•হাতের ঘাম মুছতে রুমাল ব্যবহার করতে হবে। কিছুক্ষণ পরপর হ্যান্ডওয়াশ বা সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে নিতে হবে।
•পায়ে টানা ছয় ঘণ্টার অধিক একই মোজা পরিধান ঠিক নয়। এক্ষেত্রে একাধিক জোড়া মোজা ব্যবহার করতে হবে।
•পায়ে ঘাম ও ধুলোময়লা জমে অনেকেরই ফাংগাল ইনফেকশন হয়। এ থেকে রক্ষা পেতে হলে সুতির মোজা পড়তে হবে।
•দীর্ঘক্ষণ মোজা পরে থাকলে বাসায় ফিরে পা ভালো করে ধুয়ে পরিস্কার করতে হবে। এরপরও পায়ে গন্ধ থাকলে সাবান দিয়ে পা ধুয়ে ফেলতে হবে।
•মোজা পড়ার আগে প্রতিবার পা মুছে নিতে হবে। পায়ে কোনো ময়লা বা পানি যেন জুতোর মধ্যে প্রবেশ না করতে পারে, সেদিকেও লক্ষ্য রাখতে হবে।
•পায়ের গন্ধের মাত্রা বেশি হলে হালকা গরম পানিতে শ্যাম্পু মিশিয়ে পা ১০ থেকে ১৫ মিনিট ভিজিয়ে রাখতে হবে। এভাবে প্রতিদিন পা ডুবিয়ে রাখলে চার-পাঁচ দিনের মধ্যেই পায়ের দুর্গন্ধ কমে আসবে।
•পা ধোয়া শেষে পরিস্কার তাওয়েল দিয়ে পায়ের সব অংশ মুছে নিতে হবে।
•ঘরের বাইরে ব্যবহৃত জুতো জোড়া প্রতিদিনই হালকা রোদে শুকাতে হবে।
•বাইরের ব্যবহৃত জুতো ধোয়ার উপযুক্ত হলে তা ধুয়ে হালকা রোদে দিয়ে শুকিয়ে নিতে হবে।
•ব্যবহার করা মোজা প্রথমে কাপড় ধোয়া সাবান দিয়ে ভালো করে ধুয়ে নিন। ধোয়া মোজায় আবার ভালো করে সাবান লাগান এবং সাবান লাগানো অবস্থায় রোঁদে শুকাতে দিন।
•যাদের পায়ে অতিরিক্ত দুর্গন্ধ হয় তারা মোজা পরার পূর্বে পায়ের তালু এবং আঙ্গুলের ফাঁকে ফাঁকে হালকা সাবান মেখে নিয়ে তারপর মোজা পরলে এই দুর্গন্ধের সমস্যা আর থাকবে না।
•এছাড়াও পায়ের দুর্গন্ধ এড়াতে পায়ের বিশেষ সুগন্ধি বাজার থেকে সংগ্রহ করে নিতে পারেন।
•হাত-পা ঘামা বা পায়ের দুর্গন্ধ যদি বেশি হয় তবে অবশ্যই অভিজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে।

এই টিপস গুলি মেনে চলেও যারা এই সমস্যায় ভুগছেন তাদের জন্য আরো কিছউ টিপস:

•এক গামলা গরম পানিতে এক টেবিল চামচ বেকিং পাউডার (baking soda) মিশিয়ে সেই পানিতে ২০ মিনিট পা ডুবিয়ে রাখুন। এক সপ্তাহ প্রতিদিন রাতে এই পদ্ধতি অনুসরণ করলে আপনার পায়ের দুর্গন্ধ হওয়ার চান্স কমে যাবে।

•পায়ের দুর্গন্ধ কমিয়ে আনতে গরম পানিতে কয়েক ফোঁটা ল্যাভেন্ডার (lavender) অয়েল মিশিয়ে ১৫ থেকে ২০ মিনিট সে পানিতে পা ভিজিয়ে রাখুন। টানা এক সপ্তাহ প্রতিদিন দুইবার এই নিয়ম অনুযায়ী চললে পায়ের দুর্গন্ধ হওয়া কমে যাবে।

•ফিটকিরি (alum) গুঁড়ো এক কাপ পানিতে মিশিয়ে সেই পানি দিয়ে আপনার পা ধুয়ে ফেলুন। পা শুকিয়ে গেলে আপনি পায়ে জুতো পরে দেখুন দুর্গন্ধ কম হবে।

•দেড় কাপ ভিনেগার (vinegar) আট কাপ গরম পানিতে মিশিয়ে আপনার পা ১০ থেকে ১৫ মিনিট সেই পানিতে ভিজিয়ে রাখুন। পরে সাবান দিয়ে আপনার পা ধুয়ে ফেলুন। দেখবেন পায়ে দুর্গন্ধ কম হচ্ছে।

•আধা কাপ সোহাগা (borax) ও আধা কাপ ভিনেগার দুই কাপ পানি দিয়ে মিশিয়ে একটি স্প্রে বোতলে নিন, এবার এই মিশ্রণ আপনার জুতোর মধ্যে স্প্রে করুন। আবার একই উপায়ে জুতো পরার আগে এই মিশ্রণ স্প্রে করে জুতো পায়ে দিন। দেখবেন আর পায়ে গন্ধ হবে না।

বিব্রতকর অবস্থা এড়াতে উপরের যেকোন একটি পদ্ধতি প্রয়োগ করে দেখুন। আপনি নিরাশ হবেন না।